বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০

ব্রেকিং নিউজ

চট্টগ্রাম বন্দর জেটিতে ফের অপারেশন ‍শুরু


২১ মে, ২০২০ ৩:৪৫ : অপরাহ্ণ

বিএনএ,চট্টগ্রাম: সারা রাত তাণ্ডব চালানোর পর ঘূর্ণিঝড় আম্পান এখন একেবারেই দুর্বল হয়ে গেছে।ঘূর্ণিঝড়টি স্থল নিম্নচাপে পরিণত হয়ে যাওয়ায় মোংলা, পায়রা সমুদ্রবন্দরসহ যেসব এলাকায় ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত ও ৯ নম্বর বিপদ সংকেত ছিল, সেটি তুলে ফেলা হয়েছে। তার পরিবর্তে ৩ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।তুলে নেওয়া হয়েছে জারি হওয়া চট্টগ্রাম বন্দরে নিজস্ব সংকেত ‘রেড অ্যালার্ট-৪’। বৃহস্পতিবার (২১ মে) সকাল থেকে বন্দরের জেটিতে ঢুকতে শুরু করেছে জাহাজ এবং চালু হয়েছে অপারেশনাল কার্যক্রম।

সকাল ১১ টায় চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের উপ-সংরক্ষক ক্যাপ্টেন ফরিদুল আলম বিএনএকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

ক্যাপ্টেন ফরিদুল আলম বলেন, আবহাওয়ার অধিদফতর সকালে ৯ নম্বর বিপদ সংকেত তুলে ৩ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলার পর থেকে বন্দরের জারি হওয়া নিজস্ব সংকেত ‘রেড অ্যালার্ট-৪’তুলে নেওয়া হয়েছে।সকাল থেকে জেটিতে জাহাজ ঢুকতে শুরু করেছে। একইসঙ্গে পণ্য ওঠা-নামার কার্যক্রম শুরু হয়েছে। যেসব বড় জাহাজ বহির্নোঙর থেকে গভীর সমুদ্রে পাঠানো হয়েছে তা পুনরায় বহির্নোঙরে চলে এসেছে।

১৯৯২ সালে বন্দর কর্তৃপক্ষের প্রণীত ঘূর্ণিঝড়-দুর্যোগ প্রস্তুতি এবং ঘূর্ণিঝড়–পরবর্তী পুনর্বাসন পরিকল্পনা অনুযায়ী, আবহাওয়া অধিদপ্তরের সংকেত অনুযায়ী চার ধরনের সতর্কতা জারি করে বন্দর। আবহাওয়া অধিদপ্তর ৩ নম্বর সংকেত জারি করলে বন্দর প্রথম পর্যায়ের সতর্কতা বা ‘অ্যালার্ট-১’ জারি করে। ৪ নম্বর সংকেতের জন্য বন্দর অ্যালার্ট-২ জারি এবং বিপৎসংকেত ৫, ৬ ও ৭ নম্বরের জন্য ‘অ্যালার্ট-৩’ জারি করা হয়। মহাবিপদ  সংকেত ৮, ৯ ও ১০ হলে বন্দরেও সর্বোচ্চ সতর্কতা বা ‘অ্যালার্ট-৪’ জারি করা হয়।

বন্দর তথ্য মতে, ঘূর্ণিঝড় আম্পানের কারণে সোমবার (১৮ মে) বিকেল থেকে চট্টগ্রাম বন্দরে রেড অ্যালাট ৩ জারি করা হয়েছে। অ্যালাট জারির সাথে সাথে বন্দরের জেটি থেকে জাহাজ খালি করার কাজ শুরু হয়। মঙ্গলবার (১৯ মে) সকাল সাড়ে আটটার মধ্যে বন্দরের জেটি থেকে ১৯টি জাহাজ সাগরে পাঠিয়ে দেওয়া হয় । বহির্নোঙরে থাকা ৫১টি বড় জাহাজ গভীর সমুদ্রে পাঠানো হয়।এছাড়া ১৪টি গ্যান্ট্রি ক্রেনও বুম আপ করা হয়। বন্দর চ্যানেলে অবস্থানরত অভ্যন্তরীণ জাহাজ ও ছোট ছোট নৌযান বাংলাবাজার থেকে শাহ আমানত সেতুর উজানে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। বন্দরের নিজস্ব টাগ ও নৌযানগুলো নিরাপদ আশ্রয়ে রাখা হয়েছে। বন্দরের জারি হওয়া নিজস্ব সংকেত ‘রেড অ্যালার্ট-৪’তুলে নেওয়া পর সবকিছু পুনারায় স্বাভাবিকভাবে কার্যক্রম ‍শুরু করেছে।

বৃহস্পতিবার ৮টি জাহাজ প্রবেশ করবে। তার মধ্যে ৫টি কন্টেইনার জাহাজ এবং ৩টি সাধারণ পণ্যবাহী জাহাজ। প্রথম জোয়ারে জাহাজ আসা শুরু হয়েছে। নাইট নেভিগেশন বন্ধ থাকায় রাতের জোয়ারে কোন জাহাজ বন্দরে প্রবেশ করবে না। শুক্রবারের প্রথম জোয়ারে আরও জাহাজ জেটিতে ভিড়বে।

Print Friendly and PDF

ট্যাগ :

আরো সংবাদ

আর্কাইভ
May 2020
F S S M T W T
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30