Bangladesh News Agency -bna
পাক বিমান দুর্ঘটনা: সৌভাগ্যবান সেই ২জনই
Home » পাইলটের অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসই কাল হল!
বিশ্ব-পরিক্রমা সব খবর

পাইলটের অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসই কাল হল!

বিশ্ব ডেস্ক:বিমানবন্দরের এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলার থেকে তিন তিনবার  সতর্ক করা হয়েছিল পাইলটকে। কিন্তু কথা না শুনে পাল্টা জবাবে তিনি বলেছিলেন, ‘সব ঠিক আছে। আমি সামলে নেব।পাইলটের এই আত্মবিশ্বাসই শেষ পর্যন্ত কাল হল। পাইলট-ক্রুসহ ৯৭জন বিমানের আরোহীকে প্রাণ দিতে হয়েছে।সৌভাগ্যক্রমে বেঁচে যান পাকিস্তান এয়ারলাইন্সের অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটের  দুজন যাত্রী।

গত শুক্রবার লাহোর থেকে করাচির উদ্দেশ্যে যাত্রা করে পিকে-৮৩০৩ বিমানটি। করাচির জিন্নাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের আগেই মাত্র একমাইল দূরে বিমানটি আছড়ে পড়ে একটি ঘনবসতি এলাকায়।আগুনে  বিমানের যাত্রীরা পুড়ে মারা যান।পুড়ে যায় তিন বাড়ি।আহত হন অনেকে।

জানা গেছে, বিমানটিতে যাত্রী এবং ক্রু সদস্য মিলিয়ে মোট ৯৯ জন ছিলেন। তারমধ্যে ৯৭ জনই মারা গেছেন।সোমবার তদন্তকারী কর্মকর্তাদের দেয়া এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, বিমানটিতে আড়াই ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে ওড়ার জন্য জ্বালানি ছিল। আর সেটি উড়েছিল মাত্র দেড় ঘণ্টা। পাইলটের ভুল নাকি যান্ত্রিক গোলযোগ, ঠিক কী কারণে ওই বিমানটি ভেঙে পড়েছিল তা খতিয়ে দেখছেন তারা।

রিপোর্টে বলা হয়, বিমানবন্দর থেকে প্লেন যখন ১৫ নটিক্যাল মাইল দূরে তখন প্রথম ওয়ার্নিং বা সতর্কবার্তা পাঠায় এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলার বা এটিসি। ৭ হাজার ফুটের বদলে তখন প্লেন উড়ছিল ১০ হাজার ফুট উচ্চতায়। দ্বিতীয়বার যখন সতর্কবার্তা পাঠানো হয় তখন বিমানবন্দর থেকে প্লেনের দূরত্ব ১০ নটিক্যাল মাইল। তখন ৩ হাজার ফুটের বদলে বিমান উড়ছিল ৭ হাজার ফুট উচ্চতায়। পরপর দুটো সতর্কবার্তার পরেও কোনো তৎপরতা দেখাননি পাইলট। অবতরণের ঠিক আগ মুহূর্তেও এটিসি থেকে ওয়ার্নিং পাঠানো হয় পাইলটকে। জবাবে পাইলট জানান, পরিস্থিতি নিয়ে তিনি চিন্তিত নন বরং সব সামলে ল্যান্ডিংয়ের জন্য প্রস্তুত তিনি।সূত্র:সনি, ডন

পাক বিমান দুর্ঘটনা: সৌভাগ্যবান সেই ২জনই

পাকিস্তানে যাত্রীবাহী বিমান বিধ্বস্ত।।

বিএনএ/এসজিএন

আরও পড়ুন

আবারও স্থগিত হল জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা

Jishan Islam

নারী টি-টোয়েন্টি বাছাইপর্ব, নেদারল্যান্ডস গেছে টাইগ্রেসরা

RumoChy Chy

ইরানের উপস্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনায় আক্রান্ত

hasanmunna