শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০

ব্রেকিং নিউজ


বিষয় :

স্বস্তির নি:শ্বাস।।বড় বিপর্যয় থেকে রক্ষা


২১ মে, ২০২০ ৪:০৭ : অপরাহ্ণ

বিএনএ, ঢাকা:  ৬ ঘন্টা ধরে তান্ডব চালিয়ে উপকুলীয়াঞ্চলকে অনেকাংশে বিধ্বস্ত করে দিয়েছে প্রবল ঘূর্ণিঝড় আম্পান। বুধবার(২০মে) সারা রাতব্যাপী প্রচণ্ড ঝড়ে খুলনা, বাগেরহাট ও সাতক্ষীরা জেলার উপকূলীয় এলাকার হাজার হাজার ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।বুধবার সন্ধ্যায় প্রবল গতিতে আঘাত হানে সুপার সাইক্লোন আম্পান।

সন্ধ্যা ৬ টায় শুরু হয়ে সর্বোচ্চ ১১২ কিলোমিটার গতিতে আঘাত হানে খুলনা সাতক্ষীরা বাগেরহাট সুন্দরবনসহ উপকুলীয়াঞ্চলে। প্রায় ৬ ঘন্টা তান্ডব চালিয়ে রাত ১২ টার দিকে উপকুলীয়াঞ্চল অতিক্রম করেছে আম্পান।

ভারী বর্ষণ ও তীব্র জোয়ারের পানির তোড়ে বাঁধ ভেঙ্গে তলিয়ে গেছে বিভিন্ন এলাকার ফসলি জমি ও মাছের ঘের। সড়কে বড় বড় ভাঙ্গা গাছ পড়ে থাকায় যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে গেছে। আম্ফানের তাণ্ডবে বিধ্বস্ত জনপদে পরিণত হয়েছে গোটা সুন্দরবন উপকূল।প্রবল বেগের এই ঝড়ে সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাটসহ উপকূলীয় এলাকায় বিধ্বস্ত হয় ঘরবাড়ি, ভেঙে পড়ে গাছপালা ও বিদ্যুতের খুঁটি। উপকূলের ১৯ জেলায় অন্তত ৫১ লাখ গ্রাহক বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে।

সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল জানান, ঝড়ে সাতক্ষীরা শহর লন্ডভন্ড হয়ে গেছে। অনেক বিদ্যুতের খুঁটি ও গাছপালা উপড়ে পড়েছে। অনেক টিনচালার ঘর উড়ে গেছে। ঝড়ের তাণ্ডবে মৃত্যু হয়েছে এক নারীর। ভেসে গেছে দুই হাজার চিংড়ির ঘের।

আম্পান সবচেয়ে বেশি তাণ্ডব চালিয়েছে সাতক্ষীরায়। উপকূলীয় এ জেলায় রাত সাড়ে ৯টার দিকে ঝড়ের গতিবেগ ছিল ১৪৮ কিলোমিটার।
সেখানকার আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জুলফিকার আলী রিপন জানান, এক ঘণ্টার বেশি সময় তীব্রগতিতে তা-ব চলেছে সাতক্ষীরায়। পরে গতিবেগ কমে ১০০ কিলোমিটারে নেমে আসে।
আম্পানের প্রভাবে গতকাল বুধবার রাতে সাতক্ষীরা, খুলনাসহ পশ্চিম উপকূলে ৫ থেকে ৭ ফুট উঁচু জলোচ্ছ্বাস বয়ে যায়। রাত ১০টার দিকে জোয়ার শুরু হলে ১৫ ফুট পর্যন্ত উঁচু জলোচ্ছ্বাস হয়। এতে প্লাবিত হয়ে বিস্তীর্ণ এলাকা।

Print Friendly and PDF

ট্যাগ :

আরো সংবাদ

আর্কাইভ
May 2020
F S S M T W T
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30