ব্রেকিং নিউজ

আবারও ঢাকা আরিচা মহাসড়ক অবরোধ


৯ অক্টোবর, ২০১৯ ২:৪৯ : অপরাহ্ণ

জাবি প্রতিনিধি: বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করার দাবিতে আজও বিক্ষোভ মিছিল ও ঢাকা- আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

বুধবার (৯ অক্টোবর) দুপুর সাড়ে বারোটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরীর সামনে থেকে মিছিলটি শুরু হয়। এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুতপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে প্রধান গেটে অবস্থান নিয়ে রাস্তা অবরোধ করেন শিক্ষার্থীরা। এসময় তারা প্রায় এক ঘন্টা রাস্তা অবরোধ করে রাখেন।

আন্দোলন কারীরা ‘গো ব্যাক ইন্ডিয়া’, ‘দিল্লী না ঢাকা, ঢাকা ঢাকা’,  ‘দেশ বিরোধী চুক্তি, মানি না, মানবো না’, ‘ আমার নদী ফিরিয়ে দে, নাইলে গদি ছাইড়াদে’ এই সব স্লোাগানে বিক্ষোভ করে থাকে।

সাধারন ছাত্রঅধিকার সংরক্ষন পরিষদের মুখপাত্র খান মুনতাসির আরামানের সঞ্চালনায় সাধারন ছাত্র অধিকার সংরক্ষন পরিষদ জাবি শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক জয়নাল আবেদীন শিশির বলেন,‘আবরার শহীদ হয়েছে কিন্তু আমরা ও কেউ না কেই শহীদ হতে পারতাম। শুধু দেশ প্রেমের কারনে আমার ভাই নির্মম ভাবে দেশের জন্য শহীদ হয়েছে। দেশের মায়া সকলের থাকা দরকার। দেশকে ভালোবাসার কারনে হয়তো সকলকে আবরারের মত জীবন দিতে হতে পারে। আমাদের দেশ নিয়ে আজকে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। আজকে আমাদের সকলকে শপথ নিতে হবে যে এই দেশের জন্য যদি জীবন দিতে হয় আমরা ছাত্র সমাজ তার জন্য প্রস্তুত আছি। কোন অপশক্তি আমাদের এই দেশকে ছিনিয়ে নিতে পারবে না। আবরার ফাহাদের খুনিদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি করছি।’

জড়িতদের দ্রুত বিচার ট্রাইবুনালের মাধ্যমে অতিদ্রুত শাস্তি নিশ্চিত করার দাবি জানিয়ে মার্কেটিং বিভাগের ৪৬ ব্যাচের শিক্ষার্থী ইমরান শাহরিয়ার বলেন,‘আমার ভাই আবরারের খুনীরা কি করে খুন করার পর নিশ্চিন্ত মনে ক্যান্টিনে যেতে পারে, খেলা দেখতে পারে তা দেখে অবাক হয়ে যায়। এদেশে আবরারই প্রথম ক্যাম্পাসে খুন হয়নি। এর আগে আমাদের জাবিতেও জোবায়ের ভাইকে হত্যা করেছে তারা। প্রশাসন প্রথমে তা ধামাচাপা দিতে চেয়েছিলো কিন্তু পারেনি। আবরারের খুনীদের বিচার করার জন্য আমি মিডিয়া ও প্রশাসন মারফত প্রধানমন্ত্রীকে বলতে চাই দ্রুত বিচার ট্রাইবুনালের মাধ্যমে অতিদ্রুত বিচার কাজ সমাপ্ত করে খুনীদের শাস্তি নিশ্চিত করেন না হলে বাংলাদেশের ছাত্রসমাজ দুর্বার আন্দোলন অব্যাহত রাখবে।

সমাপনী বক্তব্যে বাংলাদেশ সাধারন ছাত্র অধিকার সংরক্ষন পরিষদের আহ্বায়ক শাকিল-উজ-জ্জামান বলেন,‘ সরকার দেশের সার্থকে বিসর্জন দিয়ে ভারতকে পানি ,বন্দর, গ্যাস দিয়ে দেয়। আর যখনই এইদেশের মানুষ , সচেতন শিক্ষার্থীরা তাদের এই অপকর্মের বিরোধীতা করে তখনই তাদের উপর হামলা করা হয় । তেমনি বুয়েটের আবরার যখন তাদের এই কাজের সমালোচনা করলো তখনই তাকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়। এখন পর্যন্ত যারা এই হত্যার সাথে জড়িত তাদেরকে এখনো কোন বিচারের আওতায় আনা হয় নাই। হত্যার সাথে জড়িত সবাইকে এখনো আটক করা হয় নাই। আমরা বলতে চাই সন্ত্রাসীরা দিনে দিনে গড়ে উঠে নাই। সরকারের ছত্র ছায়ায় তারা আজকে সন্ত্রাস হয়ে উঠেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন এর জন্য দায়ী। আমরা বলতে চাই যারা এই হত্যার সাথে জড়িত তাদেরকে অনতিবিলম্বে বিচারের আওতায় আনতে হবে। আবরারকে হত্যার বিচার না হওয়া পর্যন্ত আমরা এ রাজপথ ছেড়ে যাবো না।

বিএন এ নিউজ২৪ডটকম/শাকিল ইসলাম, ওসমান গনী,এহক।

আরো সংবাদ

আর্কাইভ
অক্টোবর ২০১৯
শুক্র শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ
« সেপ্টেম্বর    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১