ব্রেকিং নিউজ

স্বপ্নের কালুরঘাট সেতু নির্মাণে নেতা নির্বাচন সোমবার


১২ জানুয়ারি, ২০২০ ৪:৫৫ : অপরাহ্ণ

মুহাম্মদ জুলফিকার হোসেন: আন্দোলন চলছে অনেকদিন। দাবি একটাই। পুরানোটি জরাজীর্ণ, চাই নতুন কালুরঘাট সেতু। রাজপথ থেকে সংসদ, আন্দোলনের উত্তাপ ছড়িয়েছে অনেকদূর। তবে আওয়াজ তোলাই সার, সেতুর দেখা মেলেনি।

চট্টগ্রাম-৮ (চান্দগাঁও-বোয়ালখালী) আসনে উপ-নির্বাচনে ভোট সোমবার (১৩ জানুয়ারি)। সকাল ৯টায় শুরু হয়ে ভোটগ্রহণ চলবে বিকাল ৫টা পর্যন্ত। এই আসনে এবারই প্রথম ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট হতে যাচ্ছে।

১১ জানুয়ারি মধ্যরাতে শেষ হওয়া প্রচারণায় প্রার্থীদের মধ্যে পাল্টাপাল্টি অভিযোগের কমতি ছিল না। ইভিএম নিয়ে বিপরীতমুখী অবস্থানতো আছেই। তবে সবকিছু ছাপিয়ে আলোচনার শীর্ষে কালুরঘাট সেতু ইস্যু। এলাকার মানুষের দাবি আর প্রার্থীদের প্রতিশ্রুতি, মিলেছে এই এক ইস্যুতেই। এ নির্বাচন তাই স্থানীয়দের কাছে কালুরঘাট সেতু ‘মিশনে’ নেতা নির্বাচনের দিন।

দৃষ্টি যথারীতি নৌকা আর ধানের শীষে

চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপ-নির্বাচনে মোট ছয়জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তবে মূল লড়াইটা হতে পারে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমেদ (নৌকা) ও চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সুফিয়ানের (ধানের শীষ) মধ্যে। এ আসনের অন্য প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা হলেন বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট (বিএনএফ) চেয়ারম্যান এস এম আবুল কালাম আজাদ, ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশের সৈয়দ মোহাম্মদ ফরিদ আহমদ, ন্যাপের বাপন দাশগুপ্ত ও মোহাম্মদ এমদাদুল হক (স্বতন্ত্র)।

আলোচনার শীর্ষে কালুরঘাট সেতু

বোয়ালখালীর মানুষের দীর্ঘদিনের দুর্ভোগের নাম কালুরঘাট সেতু। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ জীবনঝুঁকি নিয়ে এ সেতু দিয়ে চলাচল করছেন। আশংকা রয়েছে, যেকোনো সময় সেতুটিতে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যেতে পারে। এলাকার মানুষ দীর্ঘদিন থেকেই জরাজীর্ণ পুরানো সেতুর স্থলে নতুন সেতু নির্মাণের দাবি জানিয়ে আসছেন। সংসদ নির্বাচনের আগে প্রার্থীদের প্রতিশ্রুতির তালিকাতেও উপরের দিকেই থাকে নতুন কালুরঘাট সেতু।

এই আসনের প্রাক্তন সংসদ সদস্য মইন উদ্দীন খান বাদল কালুরঘাট সেতু নির্মিত না হলে সংসদ থেকে পদত্যাগ করার ঘোষণা দিয়েছিলেন। যদিও জীবদ্দশায় তাঁর কালুরঘাট সেতু দেখে যাওয়ার সুযোগ হয়নি।

বাদলের শূন্য আসনে দুই প্রধান প্রার্থী মোছলেম উদ্দিন আহমেদ ও আবু সুফিয়ানের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতিতেও উপরের দিকেই আছে নতুন কালুরঘাট সেতু।

আওয়ামী লীগের প্রার্থী মোছলেম উদ্দিন আহমেদ চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে বলেন, নির্বাচনে জয়ী হলে আমার প্রথম ও প্রধান কাজ হবে কালুরঘাট সেতু নির্মাণ। এই একটি সেতুর জন্য আমার নির্বাচনী এলাকার মানুষ অবর্ণনীয় দুঃখ-দুর্দশা ভোগ করছেন। এলাকার বাসিন্দা হিসেবে কালুরঘাট সেতু নির্মাণ করে সেই দুঃখ ঘোচানোই আমার অঙ্গীকার।

তিনি বলেন, আমি নির্বাচিত হলে এই সেতু নির্মাণ সহজ হবে। অন্য কেউ নির্বাচিত হলে তা পারবে না। তাছাড়া আমার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি প্রার্থী আবু সুফিয়ান বোয়ালখালীর বাসিন্দা নন। তাই এলাকার দুঃখ-দুর্দশাও তাঁর বোঝার কথা নয়।

বিএনপির প্রার্থী আবু সুফিয়ান বোয়ালখালীতে এক নির্বাচনী সমাবেশে বলেন, বোয়ালখালীবাসীর দুঃখ কালুরঘাট সেতু। নির্বাচন আসলেই নির্বাচনী বৈতরণী পার হওয়ার জন্য কালুরঘাট সেতুকে সবাই ব্যবহার করে। আওয়ামী লীগ ১১ বছর ক্ষমতায় আছে। কিন্তু তারা এ সেতু বাস্তবায়ন করতে পারেনি। আগামী এক বছরে পারবে তার কোনো নিশ্চয়তা নেই।

তিনি বলেন, আমি যদি আপনাদের ভোটে নির্বাচিত হতে পারি তাহলে আমার প্রধান কাজ হবে কালুরঘাটে রেল সেতুর পাশাপাশি সড়ক সেতু বাস্তবায়ন করা। বোয়ালখালীকে একটি সুন্দর উপশহর হিসেবে গড়ে তোলা।

সব কেন্দ্রেই ইভিএম

চট্টগ্রাম-৮ আসনে ভোটকেন্দ্র রয়েছে ১৭০টি। ১১৯৬টি বুথে ভোট হবে ১২শ’ ইভিএম মেশিনে। এবার এ আসনের সব কেন্দ্রেই ভোট হবে ইভিএমে।

পৌনে ৫ লাখ ভোটার

এ আসনে মোট ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৭৫ হাজার ৯৮৮ জন। এরমধ্যে বোয়ালখালী উপজেলায় ১ লাখ ৬৪ হাজার ও নগরীর চান্দগাঁও-পাঁচলাইশ এলাকায় রয়েছেন ৩ লাখ ১১ হাজার ৯৮৮ জন ভোটার। পুরুষ ভোটার ২ লাখ ৪১ হাজার ৯২২ ও নারী ভোটার ২ লাখ ৩৪ হাজার ৭৪ জন।

নির্বাচনী এলাকা

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের ৩, ৪, ৫, ৬ ও ৭ নং ওয়ার্ড এবং বোয়ালখালী উপজেলার শাকপুরা, সারোয়াতলী, কধুরখীল, পশ্চিম গোমদন্ডী, পূর্ব গোমদন্ডী, পোপাদিয়া, চরণদ্বীপ, আমুচিয়া ও আহল্লা করলডেঙ্গা ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত চট্টগ্রাম-৮ নির্বাচনী এলাকা।

 প্রস্তুত নির্বাচন কমিশন

নির্বাচনকে ঘিরে সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছে চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন অফিস। এই আসনে প্রথমবারের মতো ইভিএমে ভোট হওয়ায় ১১ জানুয়ারি প্রতীকী (মক) ভোটের আয়োজন করা হয়। ভোটগ্রহণ সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে ভোটকেন্দ্রগুলোতে পর্যাপ্ত সংখ্যক আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য থাকবেন বলেও জানানো হয়েছে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে।

চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মো. হাসানুজ্জামান জানান, নির্বাচনকে অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য করতে কমিশনের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ৭ নভেম্বর জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) একাংশের সভাপতি মইন উদ্দীন খান বাদলের মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়।

ফিরে দেখা: কালুরঘাট সেতু

উইকিপিডিয়া সূত্রে জানা যায়, চট্টগ্রামের কর্ণফুলী নদীর উপর ১৯৩০ সালে ব্রুনিক এন্ড কোম্পানি সেতু বিল্ডার্স হাওড়া নামে একটি সেতু নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান বর্তমান কালুরঘাট সেতুটি নির্মাণ করে। সেতুটির রয়েছে দুটি এব্যাটমেট, ছয়টি ব্রিক পিলার, ১২টি স্টিলপিলার ও ১৯টি স্প্যান। প্রাথমিকভাবে ট্রেন চলাচলের জন্য ৭শ গজ লম্বা সেতুটি উদ্বোধন করা হলেও পরে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় মোটরযান চলাচলের জন্য ডেক বসানো হয়। দেশবিভাগের পর আবার ডেক তুলে ফেলা হলেও ১৯৫৮ সালে সবরকম যানবাহন চলাচলের জন্য উপযোগী করা হয়।

Print Friendly and PDF

আরো সংবাদ

আর্কাইভ
January 2019
F S S M T W T
« Dec    
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031